1. admin@bartasamahar.com : admin :
মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৬:৫৯ অপরাহ্ন

রাশিয়া-ইউক্রেন উত্তেজনা, যুদ্ধ কী ‘অনিবার্য’

  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২২
  • ১১৪ বার পঠিত

বার্তা সমাহার দেশ-দেশান্তর ডেস্ক: ক্ষণে ক্ষণে রূপ পাল্টাচ্ছে রুশ-ইউক্রেন উত্তেজনা। সীমান্ত থেকে মস্কোর সেনা প্রত্যাহার ও সংঘাত এড়াতে কিয়েভের ছাড় দেওয়ার ঘোষণার এক দিন না যেতেই আবারও উত্তেজনা তুঙ্গে। যুক্তরাষ্ট্র বলছে, ইউক্রেনে হামলার অজুহাত খুঁজছে রাশিয়া। এ অবস্থার মধ্যেই মস্কোয় নিযুক্ত মার্কিন দূতাবাসের উপপ্রধানকে বহিষ্কার করেছে পুতিন সরকার। চলমান সংকট সমাধানে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক হলেও সেখানেও আসেনি কোনো সমাধান।

ইউক্রেন সীমান্ত থেকে সেনা প্রত্যাহারের দাবি করলেও সামরিক শক্তি প্রদর্শন অব্যাহত রেখেছে রাশিয়া। বৃহস্পতিবারও সাঁজোয়া যান ও গোলাবারুদসহ যুদ্ধসরঞ্জাম নিয়ে সামরিক মহড়া চালান রুশ সেনারা। এ অবস্থায় ইউক্রেনকে রক্ষায় ব্যস্ত পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো এখনো পূর্ব ইউরোপে নিজেদের সমরশক্তি বাড়িয়েই চলেছে। রোমানিয়ায় তিনটি জার্মান যুদ্ধবিমানসহ বুলগেরিয়ায় স্প্যানিশ যুদ্ধবিমান পাঠিয়েছে জোটটি। চারটি ব্রিটিশ যুদ্ধবিমান পৌঁছেছে সাইপ্রাসেও। এসবের মধ্যেই ন্যাটোর সদস্যপদ লাভের আকাঙ্ক্ষার কথা স্পষ্ট করে দিল কিয়েভ। ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি জানান, মস্কোর আপত্তি থাকলেও কিয়েভ ন্যাটোর সঙ্গে যুক্ত হতে প্রস্তুত।

একের পর এক নাটকীয় ঘটনায় রাশিয়ার সঙ্গে ইউক্রেনের সমঝোতার সম্ভাবনা দিন দিন ক্ষীণ হয়ে আসছে। এই ইস্যুতে উত্তপ্ত বিশ্ব রাজনৈতিক অঙ্গনও। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আবারও সতর্ক করে বলেছেন, কয়েক দিনের মধ্যেই ইউক্রেনে হামলা করতে পারে রাশিয়া। বাইডেন বলেন, রাশিয়া সেখানে হামলার অজুহাত খুঁজছে। আর এমনটি হলে ন্যাটো অবশ্যই তার মিত্রকে রক্ষা করবে।

তবে হামলা হলে মস্কোকে ছাড় দিতে নারাজ পশ্চিমা বিশ্ব। ইউক্রেন সীমান্তে সরকারি বাহিনী ও রুশপন্থি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের মধ্যে গোলাগুলির ঘটনা কিংবা মস্কোয় নিযুক্ত মার্কিন দূতাবাসের উপপ্রধানকে রাশিয়া থেকে বহিষ্কার করা সবই আমলে নিচ্ছে পশ্চিমা দেশ গুলো। তারা বলছে, এসব ঘটনা ইউক্রেনে হামলার আগে মস্কোর অজুহাত। তবে ন্যাটো ভূখণ্ডের প্রতিটি ইঞ্চি রক্ষা করার ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন।

এদিকে, সামরিক সংঘাত ঘিরে নানা জল্পনা-কল্পনার মধ্যেই তড়িঘড়ি করে বৈঠকে বসে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য রাষ্ট্রগুলো। বৈঠকে ২০১৪ সালের পর ইউক্রেন ও এর আশপাশের সীমান্তে চলমান উত্তেজনা অন্য যে কোনো সময়ের চেয়ে বেশি জানিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে সংস্থাটি। এমনকি কূটনৈতিক সমাধান ছাড়া পরিস্থিতি উতরে ওঠার সম্ভাবনা নেই বলেও আভাস দেওয়া হয়েছে।

বাস/দিগ-আ/১১/২২

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর
© All rights reserved © 2022 Barta Samahar
Theme Customized By Theme Park BD