1. admin@bartasamahar.com : admin :
মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৭:১৭ অপরাহ্ন

করোনার চোখ রাঙানি ভুলে সৌহার্দ্যের ইদ উদযাপন

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ৩ মে, ২০২২
  • ৮২ বার পঠিত

আবিদ আহমেদ, বার্তা সমাহার: বিশ্বময় মহামারির জন্য গেলো দুই বছর করোনা ভাইরাসের চোখ রাঙানি সহ্য করতে হয়েছে সমগ্র বিশ্ববাসীকে। জনজীবনে এমন স্তব্ধতা নেমে এসেছিল উৎসব আনন্দেও স্বজনদের কাছে এসে মিলিত হওয়ার সুযোগ ছিল না। হাত মিলিয়ে কোলাকুলি না করলে ঈদের পূর্ণতা পেতো না। সেখানে করোনা সংক্রমণ রোধে সরকারের নিষেধাজ্ঞাই ছিল কোলাকুলি-করমর্দন না করার। তবে এবার স্বস্তি ফিরেছে মহামারি করোনার বিনাশে। হাতে হাত মিলিয়ে শুভেচ্ছা বিনিময় শেষে বুকে বুক মিলিয়ে কোলাকুলি হয়েছে ঈদের সকালে।

আজ মঙ্গলবার (৩ মে) পবিত্র ঈদুল ফিতর পালিত হলো। ৩০ দিনের রমজান মাস শেষে শাওয়াল মাসের শুরু। এই মাসের প্রথম দিনটি ঈদুল ফিতর হিসেবে পালিত হয়। করোনার চোখ রাঙানিতে গেল ২ বছর ঈদ ছিল প্রচলিত আয়োজনহীন। যেনো একান্তই ঘরোয়া এক পরিবেশ। কিন্তু এবার স্বস্তি ফিরেছে জন জীবনে। যথাযোগ্য ধর্মীয় মর্যাদায় সারা দেশে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হচ্ছে।

করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে গেলো দুই বছর ঈদের নামাজে জনসমাগম রোধের পাশাপাশি কোলাকুলি-করমর্দন না করার নির্দেশনা দিয়েছিল সরকার। করোনার ভয়াবহতায় মানুষজনও স্বাস্থ্যবিধি মেনে দূরত্ব বজায় রেখেছিলেন। সম্প্রতি দীর্ঘ বিধিনিষেধ ও বৃহৎ জনগোষ্ঠীকে ভ্যাকসিনের আওতায় আনার মধ্য দিয়ে ক্ষীণ হয়েছে করোনা সংক্রমণের হার। ঈদের আগ দিন পর্যন্ত টানা ১১ দিন করোনায় কারও মৃত্যু হয়নি সারা দেশে। এবার আর কোন বিধি নিষেধ আরোপ করেনি সরকার। ফলে স্বরূপে ফিরেছে ঈদের আনন্দ আয়োজন।

সারা দেশে ঈদের জামাত শেষে চেনা-অচেনা সবাই শুভেচ্ছা বিনিময় করেছেন করমর্দন আর কোলাকুলি করে। সৌহাদ্যের চিত্র দেখা মিলেছে ঈদগাহ ময়দানে। ঈদের নামাজ আদায়ের পর মুসল্লিদের মধ্যে পারস্পারিক কোলাকুলি-করমর্দনের ধুম পড়ে যায়। শুধু ঈদগাহ নয়, ঈদের এ সময়ে পরিচিত জনদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়ে কোলাকুলি-করমর্দন প্রাচীন রেওয়াজ।

আলীনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আহবাবুর রহমান খান শিশু কোলাকুলির মজার স্মৃতিস্মরণ করে বলেন, আমাদের চারপাশে অনেক শ্রদ্ধেয় মুরুব্বি থাকেন যাদের সামনে দাড়াতেও ছোটবেলা আমরা সংকোচ বোধ করতাম, সাহস পেতাম না। অথচ ইদের দিন এলে তাদের সঙ্গেও কোলাকুলিতে কোন বাঁধা ছিলো না।

আহবাবুর রহমান খান শিশু বলেন, আমরা স্কুলে থাকতে বন্ধুরা বাজি ধরতাম কে হেড স্যারের সাথে কোলাকুলি করবে, কে চেয়ারম্যান চাচার সাথে কোলাকুলি করবে। প্রথম প্রথম ভয় লাগতো। কিন্তু কোলাকুলি করার পর ভালোই লাগতো। আব্বা বা বড় ভাই যখন ইদের দিন বুকে জড়িয়ে কোলাকোলি করতেন তখন মনে হতো, সারা বছর কেন তাদের এতো ভয় লাগে। সেই দিনগুলো হয়ত আর ফিরে পাবো না, কিন্তু কখনও ভুলবোও না। আমার প্রিয় ইউনিয়নবাসীর প্রতি ইদুল ফিতরের শুভেচ্ছা ও সালাম জানাচ্ছি।

আলীনগর ইউনিয়নের চন্দগ্রাম ঈদগাহ ময়দানে নামাজ শেষে মুসল্লিদের সঙ্গে কোলাকুলি করছেন মারুফ আহমদ চৌধুরী । তিনি বললেন, গত দুই বছর বিধি নিষেধ ছিলো। মানুষজনও শঙ্কা থেকে কোলাকুলি করতে চাইতো না। এবার ভালো লাগছে যে সেই শঙ্কা নেই। সকলকে বুকে জড়িয়ে কোলাকুলি করতে পেরেছি।

করগ্রাম জামে মসজিদে নামাজ শেষে লুৎফুর-নেহার মেমোরিয়াল গার্লস স্কুলের সহকারী প্রধান শিক্ষক এ এম মুহিবুল হাছান এনাম বলেন- ইদ সম্প্রীতির বন্ধনকে সুদৃঢ় করে। নামাজ শেষে সকলের আন্তরিক শুভেচ্ছা বিনিময় নতুন এক আবহ সৃষ্টি করে। পারস্পরিক হৃদ্যতা গড়ে উঠে। গেলো দুটো বছর তো করমর্দন বা কোলাকুলি হয়নি, করোনা ভাইরাসের ফলে সরকারি বিধিনিষেধ ছিলো মানুষও অস্বস্তি বোধ করতো। এই মহামারি আমাদের দীর্ঘদিনের অভ্যেসেও প্রভাব ফেলেছে। অথচ আমরা ছোট বেলায় প্রতিযোগিতা করতাম কোলাকুলি নিয়ে। ঈদের দিনে কে কতজনের সাথে কোলাকুলি করতে পেরেছে। এবার মহামারি কাটিয়ে খোলামেলা ইদ উদযাপন হলো ভালোই লাগছে।

প্রসঙ্গত, ইদের দিনের কোলাকুলি শুধু বাংলাদেশে মধ্যে প্রচলিত রেওয়াজ নয়। ধর্মীয় ভাবেও ঈদের দিনে কোলাকুলির গুরুত্ব রয়েছে। সামাজিক সম্প্রতিতেও কোলাকুলি গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ। আবু হুরায়রা থেকে বর্ণিত, একদা নবী কারিম (স.) এর কাছে হাসান (রা.) আসলেন, তিনি তখন তাকে জড়িয়ে ধরলেন এবং কোলাকুলি করলেন। রাসুল (স.) দীর্ঘদিন পরে কারও সঙ্গে সাক্ষাতে কোলাকুলি করতেন।

বৈজ্ঞানিক ভাবেও এই কোলাকুলির উপকারিতার তথ্য রয়েছে। বলা হয়, কোলাকুলি করার সময় আমাদের মস্তিষ্কে অক্সিটোসিন নামে এক হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে যায়। এই হরমোনটির মাত্রা যত বৃদ্ধি পেতে থাকে, তত আমাদের মন ভাল হতে শুরু করে। ফলে যার সঙ্গে কোলাকুলি করছেন, তার সঙ্গে আপনার সম্পর্কের উন্নতি ঘটে। সেই সঙ্গে সম্পর্কের গভীরতাও বৃদ্ধি পায়। নর্থ ক্যারোলাইনা মেডিক্যাল স্কুলের মনোবিজ্ঞানী ক্যারেন গ্রুজেন বলেন, ‘কোলাকুলি করলে স্ট্রেস হরমোন কর্টিসোল মান হ্রাস করে এবং বাড়িয়ে দেয় ‘ভালো লাগা’ হরমোন ডোপামিন ও সেরোটনিন।’

বাস/ইরি-১/২২

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর
© All rights reserved © 2022 Barta Samahar
Theme Customized By Theme Park BD