1. admin@bartasamahar.com : admin :
মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৮:৩৮ অপরাহ্ন

নতুন শিক্ষাক্রম অনুমোদন: আগামী বছর থেকে বাস্তবায়ন

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ৩১ মে, ২০২২
  • ৫৭ বার পঠিত

বার্তা সমাহার অনলাইন ডেস্ক: দেশের প্রাক-প্রাথমিক থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নের চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। প্রাথমিক, মাধ্যমিক, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষার নতুন শিক্ষাক্রম নিয়ে আলোচনা করে এ শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নের চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ২০২৩ সালে নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নের কাজ শুরু হবে। ইতোমধ্যে মাধ্যমিক পর্যায়ের ৬২টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নতুন শিক্ষাক্রমের পাইলটিং চলছে। ৬৫টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আগস্ট মাসে নতুন শিক্ষাক্রমের পাইলটিং শুরু হচ্ছে।

সোমবার (৩০ মে) বিকেলে রাজধানীর আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ইনস্টিটিউটে প্রাক-প্রাথমিক থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত নতুন শিক্ষাক্রম অনুমোদনের জন্য অনুষ্ঠিত সভায় শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নের চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। জাতীয় শিক্ষাক্রম সমন্বয় কমিটি ও জাতীয় শিক্ষাবিষয়ক উপেদষ্টা কমিটির যৌথ অংশগ্রহণে এই সভাটি হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

জানা গেছে, জাতীয় পর্যায়ের কমিটির সবার সামনে প্রাথমিক, মাধ্যমিক, কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষার নতুন শিক্ষাক্রম নিয়ে আলোচনা করে সেগুলো বাস্তবায়নে চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়। মাধ্যমিকের শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নে পাইলটিং চলছে। প্রাথমিকের পাইলটিংও শুরু হবে। পাইলটিং নিয়ে কোনো নেতিবাচক মন্তব্য পাওয়া যায়নি। এসব বিষয় নিয়ে সার্বিক আলোচনার পর নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নের চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

অনুমোদন পাওয়ায় প্রাথমিক, মাধ্যমিক (ষষ্ঠ থেকে দ্বাদশ), মাদরাসা ও কারিগরি নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন করা যাবে। শিক্ষা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সরেজমিনে পাইলটিং চলা প্রতিষ্ঠান গুলো ঘুরে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের কাছ থেকে মতামত জানার বিষয়েও সভায় আলোচনা হয়েছে। নতুন শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন হলে শিক্ষাব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন হবে। শিশুদের বিকাশে এ শিক্ষাক্রম সহায়ক হবে।

সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এ বছর পরীক্ষামূলক ভাবে (পাইলটিং) বাস্তবায়ন শেষে আগামী বছর থেকে বিভিন্ন শ্রেণিতে নতুন শিক্ষাক্রম পর্যায়ক্রমে চালু হবে। এর মধ্যে ২০২৩ সালে প্রথম, দ্বিতীয়, ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণি; ২০২৪ সালে তৃতীয়, চতুর্থ, অষ্টম ও নবম শ্রেণি; ২০২৫ সালে পঞ্চম ও দশম শ্রেণিতে চালু হবে নতুন শিক্ষাক্রম। এরপর উচ্চ মাধ্যমিকের একাদশ শ্রেণিতে ২০২৬ সালে এবং দ্বাদশ শ্রেণিতে ২০২৭ সালে নতুন শিক্ষাক্রম চালু হবে।

নতুন শিক্ষাক্রমে প্রাক-প্রাথমিক থেকে উচ্চ মাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত বিদ্যমান পরীক্ষার চেয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ধারাবাহিক মূল্যায়ন (শিখনকালীন) বেশি হবে। এর মধ্যে তৃতীয় শ্রেণি পর্যন্ত কোনো পরীক্ষা হবে না। পুরো মূল্যায়ন হবে সারা বছর ধরে চলা বিভিন্ন রকমের শিখন কার্যক্রমের ভিত্তিতে। পরবর্তী শ্রেণি গুলোর মূল্যায়নের পদ্ধতি হিসেবে পরীক্ষা ও ধারাবাহিক শিখন কার্যক্রম- দুটোই থাকছে।

নতুন শিক্ষাক্রমে এখনকার মতো এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা হবে না। শুধু দশম শ্রেণির পাঠ্যসূচির ভিত্তিতে হবে এসএসসি পরীক্ষা। একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণিতে দুটি পাবলিক পরীক্ষা হবে। প্রতি বর্ষ শেষে বোর্ডের অধীনে এ পরীক্ষা হবে। এই দুই পরীক্ষার ফলের সমন্বয়ে এইচএসসির চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করা হবে।

বাস/অন.জা-১১১/২২

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর
© All rights reserved © 2022 Barta Samahar
Theme Customized By Theme Park BD